আজঃ রবিবার, ২৫শে সেপ্টেম্বর, ২০২২ খ্রিস্টাব্দ
১০ই আশ্বিন, ১৪২৯ বঙ্গাব্দ, শরৎকাল

বৃটিশ বিরোধী স্বাধীনতা আন্দোলনের নেত্রী  বিপ্লবী লীলা নাগের স্মরণে মৌলভীবাজারে “লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদ” গঠন

প্রকাশিতঃ August 23rd, 2022, 7:53 pm |


এম খছরু চৌধুরী : ভারতীয় স্বাধীনতা আন্দোলন ও বাঙালির মূলধারার রাজনীতির পুরোধা ব্যক্তিত্ব বিপ্লবী লীলা নাগের স্মরণে মৌলভীবাজার জেলায় লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদ গঠন করা হয়েছে। স্মৃতি পরিষদ গঠনে মৌলভীবাজার জেলার প্রগতিশীল রাজনৈতিক দল, বিভিন্ন সমাজিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন ও সাংবাদিক সংগঠনের নেতৃবৃন্দরা গত ১২ আগষ্ট ২০২২ তারিখে জেলা সদরের পাবলিক লাইব্রেরীতে এক মতবিনিময় সভার আয়োজন করেন। সভার সিদ্ধান্ত মোতাবেক আরও বড় পরিসরে জেলার সকল উপজেলার সাংস্কৃতিককর্মীদের সমন্বয়ে অদ্য ২০ আগস্ট২০২২ তারিখে মৌলভীবাজার জেলা মুক্তিযোদ্ধা কমপ্লেক্সে জেলার সর্বস্তরের মানুষের শ্রেণি-পেশার প্রতিনিধিদের মতামতের ভিত্তিতে বিশিষ্ট আইনজীবী রমা কান্ত দাশ গুপ্তকে সভাপতি ও সাংস্কৃতিক কর্মী মোঃ খছরু চৌধুরীকে সম্পাদক করে ৩১ সদস্য বিশিষ্ট লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদ গঠন করা হয়।
আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন বিপ্লবী লীলা নাগের জন্মমাটির বিশিষ্ট রাজনৈতিক নেতা রাজনগর উপজেলা আওয়ামী লীগ এর সাধারণ সম্পাদক মিলন বখত্, অন্যান্য অতিথিদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন প্রবীণ আইন বিশেষজ্ঞ শান্তি পদ ঘোষ, বিশিষ্ট ব্যবসায়ী ও সংগীত অনুরাগী ডাঃ এম এ আহাদ, প্রফেসর ড. ফললুল আলী, মায়া ওয়াহেদ, জেলা জাসদ এর সাধারণ সম্পাদক আলহাজ্ব নজরুল ইসলাম, মৌলানা মুফজল হোসেন মহিলা ডিগ্রি কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ তোফায়েল আহমদ, রাজনগর সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক শাহানারা রুবি, কবি প্রাবন্ধিক ও গবেষক সৌমিত্র দেব টিটু, প্রবীণ রাজনৈতিক ব্যক্তি সৈয়দ আব্দুল মোত্তালিব রঞ্জু, লন্ডন সিটির বঙালি সংস্কৃতির সংগঠক জয়দীপ রায়, রাজনগর উদীচীর আব্দুল ওয়াহিদ, বিশিষ্ট সাংবাদিক সরওয়ার আহমদ ও বকসী ইকবাল, কুলাউড়া উদীচীর বিপুল চক্রবর্তী, সম্মিলিত সাংস্কৃতিক জোট মৌলভীবাজার জেলার নেতা আনোয়ার হোসেন দুলাল, শ্রীমঙ্গলের সাংস্কৃতিক ব্যক্তিত্ব জলি পাল, পাঁচ গাঁও উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক অরুন ঘোষ, শিক্ষক গৌরীপদ মালসকার, শুভ চিন্তা ও মেধা-বিকাশ সহায়তা প্রকল্পের আহবায়ক অ্যাডভোকেট সুভাষ চন্দ্র ঘোষ, শিক্ষক ধীরাজ ভট্টাচার্য, সৈয়দ মুজতবা আলী কলেজিয়েট স্কুলের প্রধান শিক্ষক আবুল কালাম আজাদ, রাস্ট্র চিন্তার প্রীতম দাশ, আলী আমজদ সরকারি বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক বাবুল উদ্দিন খান, সমুন ধর, সুজয় চৌধুরী, ওর্য়ার্কার পার্টির জেলা সাধারন সম্পাদক প্রণব ঘোষ, যুব লীগের যুগ্ন সম্পাদক রিংকু চক্রবর্তী, লীলা নাগ স্মৃতি পাঠাগারের বিজিত দেব, কবি জয়নাল আবদীন শিবু, জেলা সিপিবি নেতা অ্যাডভোকেট মাসুক মিয়া, কুলাউড়ার সিপিবি নেতা সুমন মিত্র, কমলগঞ্জের প্রণীত দেব, সাহিত্যিক সুনীল শৈশব, মৌলভীবাজার সরকারি কলেজের সহকারী অধ্যাপক কাজল রায়, সাংবাদিক জাফর হোসেন, কপিল দেব, শুভচিন্তার বিপ্লব চরন ধর, পাচঁগাঁও এর নুরুল ইসলাম ফয়সাল প্রমুখ অন্যান্য সামাজিক ও সাংস্কৃতিক সংস্থার শতাধিক সদস্যবৃন্দ।
বক্তারা বলেন, লীলা নাগ আমাদের বাঙালির গর্ব, লীলা নাগ আলোর বাতিঘর। তাঁকে নিয়ে আমরা গর্বিত এই কারণে যে, তিনি আমাদের এ জেলার পাচঁগাঁও গ্রামের ভূমি কন্যা, তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম ছাত্রী, বিপ্লবী প্রীতিলতা ওয়াদ্দেদার এঁর মতো সমাজ পরিবর্তনের স্বাধীনতাকামী হাজারো তরুন-তরুনীরা তাঁর রাজনৈতিক শিষ্য ছিলেন। তিনি ছিলেন নেতাজীর সেকেন্ড ইন কমান্ড। ঐ সময়ে তিনি জেলে না থাকলে ভারতের স্বাধীনতার ইতিহাস অন্যরকম হতো। বাঙালি জাতির আবাসভূমিতে বিভক্তি আসতো না। কোনো নারী কর্তৃক সম্পাদিত জয়শ্রী পত্রিকা ই ভারতীয় উপমহাদেশে প্রথম। তিনি দীপালি সংঘসহ অসংখ্য নারী জাগরণের বিদ্যাপীঠও গড়ে তুলেছিলেন। ঢাকার তিতুমীর কলেজ মূলত তাঁর হাতের তৈরী। বিপ্লবী ধারার এ মহিয়সী নারী ছিলেন দেশ-জাতি প্রেমের সুস্থ ধারার রাজনীতি ও নারী জাগরণের পথিকৃৎ। তাঁর জীবন সংগ্রাম নতুন প্রজন্মের সামনে নিয়ে আসলে জাতি হিসেবে আমরা আলোকিত হবো। সুস্থতা ও দেশপ্রেমের রাজনীতি বিকশিত হবে। দুঃখজনক সত্য হলো, সরকারের হস্তক্ষেপে পাবনায় সুচিত্রা সেনের বাড়ী উদ্ধার হলেও আমাদের এলাকার গর্বিত এ নারীর পৈতৃক বাড়িটি একজন কুখ্যাত রাজাকার দখল করে রেখেছে। আজও উদ্ধার হয়নি। সরকারের সাথে বাড়ী নিয়ে সৃষ্ট মামলায় দুবার দখলদার ব্যক্তি হেরে গেলেও আজ ২২ বছর ধরে রিভিশন মামলাটি হাইকোর্টে ফাইল চাপা পরে আছে। বক্তারা বাড়িটি উদ্বার করে দিতে সরকারের দৃস্টি আকর্ষণ করেন এবং এ সময়ে লীলা নাগ স্মৃতি পরিষদ গঠনের প্রধান উদ্যোক্তা ডাঃ এম এ আহাদ মামলার ফাইলপত্র প্রবীণ আইন বিশেষজ্ঞ শান্তি পদ ঘোষ ও বৈঠকের সভাপতি অ্যাডভোকেট রমা কান্ত দাশ গুপ্ত দ্বয়ের হাতে হস্তান্তর করেন।

 

লেখক : সাংবাদিক ও কলামিষ্ট


এই বিভাগের আরো খবর

  • April 24, 2020 | 9:04 pm

     সাংবাদিকতা গুজবের গজব রুখছে। সাংবাদিকদের সমাজ দর্পনের কারিগর বলা হয়। একটি সুন্দর, দুর্নীতিমুক্ত, অসাম্প্রদায়িক সমাজ গঠনে সংবাদপত্রের ভূমিকা অপরিহার্য। বিস্তারিত...

মতামত দিন

সম্পাদক ও প্রকাশকঃ
আক্তার হোসেন সাগর

ব্যবস্থাপনা সম্পাদকঃ
মোঃ শহীদ বকস

প্রধান উপদেষ্টাঃ
সৈয়দা জোহরা আলাউদ্দিন

উপদেষ্টা মণ্ডলীর সদস্যঃ
আকলু মিয়া চৌধুরী
এম. রহমান লতিফ

সম্পাদক কর্তৃক সেন্ট্রাল রোড, রাজনগর, মৌলভীবাজার থেকে প্রকাশিত ও প্রচারিত।
মোবাইলঃ ০১৭১৫-৪০৫১০৪
Email: [email protected] | [email protected] (সম্পাদক)


Developed by - Great IT
error: Content is protected !!